মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৯ অক্টোবর ২০১৫

ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য

ভর্তির জন্য বাছাই প্রক্রিয়া :

সাধারণতঃ প্রতিবছর বিভিন্ন ক্রীড়া বিভাগে আসন খালি সাপেক্ষে ডিসেম্বর মাসে বহুল প্রচারিত দৈনিক পত্রিকা, ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও বিকেএসপি ওয়েব সাইটে (bksp.portal.gov.bd) বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়। বিজ্ঞাপনে উল্লিখিত তারিখে প্রাথমিক নির্বাচনের জন্য ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের উপস্থিত থাকতে হয়। এ ছাড়াও সরকারের তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচীর মাধ্যমে প্রতি বছরই প্রাথমিকভাবে প্রশিক্ষণার্থী বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়।

 

প্রাথমিক বাছাই/নির্বাচন কার্যক্রম

খেলার নাম

বয়স

ন্যূনতম উচ্চতা

ভর্তির শ্রেণি

আরচ্যারি

১২-১৩

ছেলে ৫/-০//    মেয়ে ৪/-১০//

৬ষ্ঠ-৭ম

এ্যাথলেটিক্স

১৩

ছেলে ৫/-১//    মেয়ে ৪/-১০//

৭ম

বাস্কেটবল

১৩-১৫

ছেলে ৫/-১০//

৭ম

বক্সিং

১০-১২

ছেলে ৪/-৮//, ৫/-০//

৪র্থ-৬ষ্ঠ

ক্রিকেট

১৩

ছেলে ৫/-১//    মেয়ে ৪/-১০//

৭ম

ফুটবল

১৩

ছেলে ৫/-১//   

৭ম

জিমন্যাস্টিক্স

১০-১২

ছেলে ৪/-৮//    মেয়ে ৪/-৭//(শিথিলযোগ্য)

৪র্থ-৬ষ্ঠ

হকি

১৩

ছেলে ৫/-১//   

৭ম

জুডো

১৩

ছেলে ৫/-০//    মেয়ে ৪/-৯//

৭ম

শ্যূটিং

১৩

ছেলে ৫/-১//    মেয়ে ৪/-১০//(শিথিলযোগ্য)

৭ম

সাঁতার

১০-১২

ছেলে ৪/-৮//    মেয়ে ৪/-৭//

৪র্থ-৬ষ্ঠ

টেনিস

১২-১৩

ছেলে ৪/-৮//    মেয়ে ৪/-৭//(শিথিলযোগ্য)

৬ষ্ঠ-৭ম

টেবিল টেনিস

১৩

ছেলে ৫/-০//   

৭ম

কারাতে

১৩

ছেলে ৫/-০//   

৭ম

তায়কোয়ান্ডো

১৩

ছেলে ৫/-০//   

৭ম

উশু

১৩

ছেলে ৫/-০//   

৭ম

ভলিবল

১৩

ছেলে ৫/-০//   

৭ম

 

সুবিধাদি :

১.   আধুনিক ও বিজ্ঞান ভিত্তিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা।

২.   যোগ্যতা অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন ক্লাব এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খেলার সুযোগ।

৩.   কৃতি প্রশিক্ষণার্থীদের টিউশন ফি মওকুফ ছাড়াও অন্যান্য বিষয়ে কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য উৎসাহ প্রণোদনামূলক পুরস্কারের ব্যবস্থা।

৪.   শিক্ষা বোর্ডের সিলেবাস অনুযায়ী সাধারণ শিক্ষা, সম্পূর্ণ আবাসিক পরিবেশে সুশৃঙ্খল জীবন যাপন, পুষ্টিকর খাবার ও নৈতিক শিক্ষার সু-ব্যবস্থা।

 

প্রাথমিক নির্বাচন পরীক্ষা :

১.   প্রাথমিক বাছাইয়ের দিন ঢাকা বিকেএসপি’তে আবেদন ফরম পূরণপূর্বক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়।

২.   ডাক্তারী পরীক্ষা।

৩.   শারীরিক যোগ্যতা বা ফিটনেস টেস্ট।

৪.   স্ব-স্ব খেলা/বিভাগ অনুযায়ী ব্যবহারিক পরীক্ষা।

৫.   প্রাথমিক বাছাইয়ের দিন ০২ কপি রঙ্গিন ছবি (পাসপোর্ট সাইজ), জন্ম নিবন্ধন ও নাগরিকত্ব সনদের সত্যায়িত কপি আনতে হয়।

৬.  ক্রীড়া সরঞ্জামাদি ও পোশাক সাথে আনতে হয়।

 

চূড়ান্ত নির্বাচন :

১.   কেবলমাত্র প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত খেলোয়াড়দের নিয়ে ০৭ (সাত) দিনের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প আয়োজন করা হয়।

২.   প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে স্ব-স্ব ক্রীড়া বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।

৩.   সর্বশেষ অধ্যয়নরত শ্রেণির সিলেবাস অনুযায়ী স্ব-স্ব শ্রেণির লিখিত পরীক্ষা (বাংলা, ইংরেজি ও গণিত) গ্রহণ করা হয়।

৪.   ক্রীড়া বিজ্ঞান সংক্রান্ত ব্যবহারিক পরীক্ষা ও চূড়ান্ত ডাক্তারী পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।

৫.   সকল পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে চূড়ান্তভাবে প্রশিক্ষণার্থী নির্বাচন করা হয়।

৬.  জন্ম নিবন্ধন ও নাগরিকত্ব সনদের মূল কপি আনতে হয়।

৭.   প্রযোজ্য ক্ষেত্রে পিএসসি ও জেএসসি/জেডিসি পরীক্ষার সনদ আনতে হয়।

 

প্রশিক্ষণার্থীদের ফিস প্রদানের হার :

১.   ভর্তি ফিস       -   ২০০০/- (দুই হাজার) টাকা (ভর্তি কালীন)

২.   জামানত        -   ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা (ভর্তিকালীন ও

                      ফেরতযোগ্য)

৩.   মেডিকেল ফিস   -   ৩০০/- (তিনশত) টাকা (বাৎসরিক)

৪.   পরীক্ষার ফিস    -   ১৫০/- (একশত পঞ্চাশ) টাকা (বাৎসরিক)

৫.   সেশন চার্জ      -   ১৫০০/- (এক হাজার পাঁচশত) টাকা (ভর্তির

                      পরবর্তী বছর থেকে চালু হবে)

৬.  ম্যাগাজিন ফিস   -   ৫০/- (পঞ্চাশ) টাকা (বাৎসরিক)

৭.   লাইব্রেরি ফিস         -   ১০/- (দশ) টাকা (বাৎসরিক)

৮.  বেতন বই       -   ১০/- (দশ) টাকা (বাৎসরিক)

৯.   বিশ্ববিদ্যালয় ও বোর্ড ফিস - বিশ্ববিদ্যালয় ও বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত।

 

কলেজ ফিস নির্ধারণ :

অভিভাবকের মাসিক মোট আয়ের উপর ভিত্তি করে নিম্নে ৩টি গ্রুপে বিভক্ত করে বেতন নির্ধারণ করা হয় :

১.   ১ম ধাপ : আয় ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা পর্যন্ত সর্বনিম্ন মাসিক কলেজ ফিস ৫০০/- (পাঁচশত) টাকা।

২.   ২য় ধাপ : আয় ৫০০১-১৫০০০ টাকা পর্যন্ত সর্বনিম্ন মাসিক কলেজ ফিস আয়ের ১০%।

৩.   ১ম ধাপ : আয় ১৫০০১/- (পনের হাজার) টাকার উর্ধ্বে হলে মাসিক কলেজ ফিস আয়ের ১০%, তবে সর্বোচ্চ কলেজ ফিস ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকার উর্ধ্বে নয়।


Share with :
Facebook Facebook