মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ জুলাই ২০১৫

ঊশু

উশু বিভাগ

চায়নিজ উশু শব্দটি এসেছে ম্যান্ডারিন ভাষা থেকে। এর আভিধানিক অর্থ হলো ‘‘উ’’ অর্থ মার্শাল এবং শু অর্থ আর্ট। উশু খেলাটি হলো চায়নিজ সংস্কৃতির অংশ এবং তাদের জাতীয় খেলা। এটা কয়েক হাজার বছর ধরে চায়নায় লালিত,পালিত ও র্চচা হয়ে আসছে। প্রথমে এর উৎপত্তি ঘটান বৌদ্ধ ভিক্ষুরা, পরবর্তীতে এর কৌশলগুলো সামরিক বাহিনীতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হত। আমরা প্রচলিত সিনেমায় যে কৌশলগুলো দেখি তা’হলো উশু। উশু হলো বিজ্ঞান ভিত্তিক কুংফু। কুংফু মূলত বিভিন্ন প্রাণির আত্নরক্ষা বা রণকৌশল, যাহা মানুষ র্চচা করে। প্রাণির নাম ভেদে এর বিভিন্ন স্টাইল রয়েছে। যেমন- ব্রাঘ্র, ড্রাগন, সাপ, বানর,ঈগল প্রভৃতি। চায়নায় কুংফুর ৩০০ প্রতিষ্ঠিত স্টাইল রয়েছে। কিন্তু উশুতে এসমস্ত স্টাইলকে একিভূত করে বিজ্ঞান ভিত্তিক একক স্টাইলে আনা হয়েছে। মার্শাল আর্টের অন্যান্য বিভাগগুলো কুংফু থেকেই উদ্ভব হয়েছে। ২০১০ সালের ১১তম এস. এ গেমসে্ উশুতে বাংলাদেশ ০২টি স্বর্ণ পদক অর্জন করে। এর আগে ৩য় সাউথ এশিয়ান উশু প্রতিযোগিতা বাংলাদেশ ০২টি স্বর্ণ পদক অর্জন করে।

আমাদের বাংলাদেশে ২০১২ সালে বিকেএসপি আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, চট্টগ্রাম এ  উশু গেমস্ কার্যক্রম শুরু করে। প্রথমবারেই জাতীয় উশু প্রতিযোগিতা- ২০১২এ অংশগ্রহণ করে ক্যাডেট মো: আমির হোসেন ০১টি স্বর্ণসহ বিকেএসপি মোট ০৩টি পদক অর্জন করে। ২০১৩সালে বাংলাদেশ গেমসে্ উশুতে ক্যাডেট মো: আমির হোসেন ও ক্যাডেট মো: নাজমুল হাসান ০১টি করে স্বর্ণ পদকসহ বিকেএসপি মোট ১১টি পদক অর্জন করে। ২০১৪সালে জাতীয় খেলায় ক্যাডেট মো: আমির হোসেন একাই ০২টি স্বর্ণ পদক অর্জন করে। ফলে বিকেএসপি সর্বমোট ১৩টি পদক অর্জন করে। মো: আমির হোসেন তার সাফল্যের সুবাদে ২০১৪সালের এশিয়ান গেমসে্ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে উশু ইভেন্টে দক্ষিণকোরিয়াতে অংশগ্রহণ করে।

উশু খেলাটিকে মূলত ০২টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথা:

 ১। থাউলো বা প্রদর্শন এবং ২। সানশো বা যুদ্ধ ।

১। থাউলো: এই অংশে মোট  ১০টি ইভেন্ট রয়েছে। সাউদার্ন ভাগে রয়েছে নানচুয়ান, নানগুন ও নানদাও। নর্দান ভাগে রয়েছে চানচুয়ান, কুনশু, দাউশু, কিয়ানশু ও চিয়ানশু। এই ৭টি ইভেন্ট মোটামুটি ১মি: ২০সে:এ শেষ করতে হয়, যেখানে মানব শরীর চিতাবাঘের মত ক্ষীপ্রতায় ফিউশন প্রনালীতে কাজ করে। আর নিজো কুংফু থেকে এসেছে তাইচিচুয়ান ও তাইচিজিয়ান। যা কিনা চায়নায় বিজ্ঞান ভিত্তিক ভাবে নিউরোমেডিকেল সায়েন্সকে একত্র করা হয়েছে। এই ইভেন্ট দুটি খুব ধির স্থীর ও কমশক্তির মাধ্যমে করা হয়। এই ইভেন্টগুলো ৫-৭মিনিটে সম্পূর্ণ করা হয়। থাউলোতে ১০টি ইভেন্টের ৭টি হল বিভিন্ন অস্ত্র-শস্ত্র।

২। সানশো : উশুর এই অংশে দুইজন প্রতিপক্ষ সরাসরি সম্মুখ যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়। তবে কোন বাহ্যিক অস্ত্র-শস্ত্র ব্যবহারের সুযোগ নেই। ফুল কন্ট্রাক্ট ফাইটে বিভিন্ন ধরণের গার্ড, প্যাড পরানো হয়। যাতে কেউ মারাত্বকভাবে আঘাত প্রাপ্ত না হয়। এখানে মাথা দিয়ে মারা, হাটু বা কুনই দিয়ে মারা এবং জয়েন্ট লকস্ ব্যবহার করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এবং ফাউল। খেলাটি ২-৩ মিনিটের ৩ রাউন্ডে হয়ে থাকে। যে পক্ষ ২ রাউন্ড জিতবে সেই বিজয় হবে। এই খেলায় লাথি,ঘুশি এবং থ্রোয়িং ব্যবহার করা হয়।

 

উশু বিভিন্ন জাতীয় প্রতিযোগিতায় বিকেএসপি ক্যাডেটদের অর্জন

ক্যাডেটদের নাম

২০১২ সালের জাতীয় উশু প্রতিযোগিতা

মোট পদক সংখ্যা

অর্জিত পদক

স্বর্ণ

রৌপ্য

তাম্র

 

মো: আমির হোসেন

০১

-

-

০১

মোট অর্জন

০১

০১

০১

০৩

 

ক্যাডেটদের নাম

২০১৩ বাংলাদেশ গেমস্ (উশু প্রতিযোগিতা)

মোট পদক সংখ্যা

অর্জিত পদক

স্বর্ণ

রৌপ্য

তাম্র

 

মো: আমির হোসেন

০১

-

-

০১

মো: নাজমুল হাসান

০১

০১

০২

মোট অর্জন

০২

০৫

০৪

১১

 

ক্যাডেটদের নাম

২০১৪ সালের উশু জাতীয় প্রতিযোগিতা

মোট পদক সংখ্যা

অর্জিত পদক

স্বর্ণ

রৌপ্য

তাম্র

 

মো: আমির হোসেন

০২

-

-

০২

মোট অর্জন

০২

০৩

০৮

১৩

 

 


Share with :
Facebook Facebook