মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd এপ্রিল ২০১৫

আধুনিক  বিশ্বে  একটি  জাতিকে  পরিচিত  করে তোলার  পেছনে  ক্রীড়ার  গুরুত্ব  অপরিসীম।  বর্তমানেক্রীড়ার  জনপ্রিয়তা  ব্যক্তিগত,  সমষ্টিগত  ওজাতিগতভাবে  সমগ্র  বিশ্বকে  একই  সূত্রে  গেঁথেদিয়েছে।  একটি  দেশের  মর্যাদা  ও  ভাবমূর্তিবৃদ্ধিতে ক্রীড়া  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে  আসছে।বিশ্ব  ক্রীড়াঙ্গনে  বিপুল  আর্থিক  বিনিয়োগ,বৈজ্ঞানিক গবেষনা এবং গণমাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণাপ্রমান  করে  যে  ক্রীড়া  অত্যন্ত  গুরুত্বপূর্ণ  বিষয়।স্বাধীনতার অব্যবহিত পর  দেশের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নএবং আন্তর্জাতিক  পরিমন্ডলে সুনাম বৃদ্ধির লক্ষ্যেক্রীড়াবিদ,  ক্রীড়া  সংগঠক  ও  ক্রীড়া  অনুরাগীদেরপশ্চাৎপদতা দূরিকরণের প্রয়াসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুশেখ  মুজিবুর  রহমান  খেলাধুলাকে  প্রাধান্য  দিয়েপরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার  নির্দেশনা প্রদানকরেন।

অবস্থান: জাতীয়  স্মৃতিসৌধ  হতে  ০৯  কিলোমিটারদূরত্বে  ঢাকা-টাঙ্গাইল  মহাসড়ক  অভিমুখেসাভারস্থ  জিরানী  নামক  স্থানে  ঘনসবুজেআচ্ছাদিত  ১১৫  একর  জমির  উপর  বিকেএসপি’রঅবস্থান।  রাজধানী  ঢাকা  শহর  থেকে  প্রাতষ্ঠানেরদূরত্ব প্রায় ৪৫ কিলোমিটার।

 

একটি  জাতির  ক্রীড়ারমান  উন্নয়নে  অপরিহার্যউপাদান  হল  পর্যাপ্ত  ক্রীড়া  অবকাঠামোরসুবিধাদি  এবং  সঠিক  প্রশিক্ষণ।  উলিখিতচাহিদা  পূরনের  জন্য  একটি  ক্রীড়া  প্রতিষ্ঠানস্থাপনের প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হয়, যেখানে ক্রীড়াপ্রতিভা  সনাক্ত  করণ,  প্রতিভাবান  খেলোয়াড়দেরপরিচর্যা ও  যোগ্য  প্রশিক্ষক এবং  ক্রীড়া  বিশেষজ্ঞতৈরি করতে পারবে।     এই লক্ষ্য অর্জনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার১৯৭৪ সালে  পরিকর্ধসঢ়;পনা গ্রহণ করে,  যার  আলোকেপরবর্তীতে  শিক্ষা,  সংস্কৃতি  ও  ক্রীড়া  মন্ত্রনালয়প্রকল্প  আকারে  বাংলাদেশ  ইন্সটিটিউট  অবস্পোর্টস  (বিআইএস)  প্রতিষ্ঠার  পরিকল্পনা  করে।এরপর ১৯৮৩ সালে সরকারের এটি স্বায়ত্বশাসিত ওবিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান হিসেবে নাম পরিবর্তন করেবাংলাদেশ  ক্রীড়া  শিক্ষা  প্রতিষ্ঠান  (বিকেএসপি)রাখা হয়।  ১৯৮৬ সালের  ১৪ এপ্রিল  প্রতিষ্ঠানটিরআনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। এরপর থেকেই বিকেএসপিসর্বোচ্চ একাগ্রতার সাথে উচ্চমানের খেলোয়াড়তৈরির  কাজে  নিরলস  ভাবে  নিবেদিত  রয়েছে।বিকেএসপি  পরিচালনার  জন্য  ১০  সদস্য  বিশিষ্ট১টি পরিচালনা পর্ষদ রয়েছে,  মাননীয় যুব ও ক্রীড়াপ্রতিমন্ত্রী পরিচালনা পর্ষদের  সভাপতি। শুরু থেকেঅদ্যাবধি বিকেএসপি’র  প্রশিক্ষণার্থীরাঅসংখ্যবার  দেশের  জন্য  গৌরব  বয়ে  আনতে  সক্ষমহয়েছে।


Share with :
Facebook Facebook